• আজঃ সোমবার, ১১ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জুলাই, ২০২১ ইং

নোয়াখালীতে পারিবারিক কলহের জেরে ছোট ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, আটক ২

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ী উপজেলার জয়াগ ইউনিয়নে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ইলিয়াছ হোসেন (৩৮) নামের একজনকে কুপিয়ে হত্যা করেছে তার ভাই ও ভাতিজারা।

এ ঘটনায় দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার (১৮ জুন) বিকেল ৩টায় বাউরকোর্ট গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইলিয়াছ ওই গ্রামের মৃত নূরুল ইসলামের ছেলে। সে চট্টগ্রামের একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করতো। আটককৃতদের নাম পরিচয় জানা যায়নি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বাউরকোট গ্রামের বাসিন্দা নুরুল ইসলাম দুই বিয়ে করেন। তার প্রথম ঘরে সন্তান শাহ আলম, সরোয়ার ও ইলিয়াছ। দ্বিতীয় ঘরে দুই মেয়ে রয়েছে। বাবার মৃত্যুর পর থেকেই পারিবারিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে সৎ বোনদের ওপর বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালাতো শাহ আলম, সরোয়ার ও তাদের ছেলেরা। এ নিয়ে একাধিকবার স্থানীয়ভাবে সালিশও হয়েছে। কয়েকদিন আগে নিজ কর্মস্থল চট্টগ্রাম থেকে বাড়ীতে আসে ইলিয়াছ। শুক্রবার বিকেলে সৎ বোনদের ওপর নির্যাতনের কারণ জানতে বড় ভাইদের কাছে যায় ইলিয়াছ। এসময় সে তাদের এসব কাজ থেকে বিরত থাকতে বললে ক্ষিপ্ত হয়ে ইলিয়াছকে মারধর শুরু করে শাহ আলম ও সরোয়ার। একপর্যায়ে শাহ আলমের দুই ছেলেসহ তারা ৪জন ইলিয়াছকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে ও পরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। ইলিয়াছকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে তার এক সৎ বোনকেও পিটিয়ে জখম করে তারা। পরে বাড়ির লোকজন এগিয়ে এসে রক্তাক্ত ইলিয়াছ ও তার বোনকে উদ্ধার করে পাশ্ববর্তী চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইলিয়াছকে মৃত ঘোষণা করেন। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শওকত আকবর পলাশ জানান, ইলিয়াছের দুই সৎ বোন তাদের বিভিন্ন ভাবে নির্যাতন করা হচ্ছে মর্মে শাহ আলম ও সরোয়ারের বিরুদ্ধে গত দুইদিন আগে ইউনিয়ন পরিষদে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়ে যায়। আমরা অভিযোগটি পেয়ে বিষয়টি খোঁজ খবর নিচ্ছিলাম তার মধ্যে আজ এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটে গেলো। চাটখিল থানার ওসি আনোয়ারুল ইসলাম জানান, হাসপাতাল থেকে নিহতের সাথে থাকা দুইজনকে আমরা আটক করেছি। তাদের সোনাইমুড়ী থানায় হস্তান্তর করা হবে। সোনাইমুড়ী থানার ওসি গিয়াস উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে এ হত্যাকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।