• আজঃ শুক্রবার, ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

ফের করোনায় আক্রান্ত,কাতারেও রুমে থাকতে হচ্ছে খেলোয়াড়দের

করোনাভাইরাস যেন পিছুই ছাড়ছে না বাংলাদেশ ফুটবল দলকে। বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বের ম্যাচ খেলতে বৃহস্পতিবার দোহা পৌঁছেছে বাংলাদেশ। এর আগে বুধবার রাতে করোনা শনাক্ত হওয়ায় দল থেকে ছিটকে পড়েন ডিফেন্ডার মনজুরুর রহমান। কাতার পৌঁছানোর পর বাংলাদেশ দলের আরও দুই সদস্যের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

স্বস্তির খবর, নতুন কোনো খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত হননি। দলীয় বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, আক্রান্ত দুই সদস্য হলেন দলের ম্যানেজার আমের খান ও ফিজিওথেরাপিস্ট ফুয়াদ হাসান হাওলাদার। এ ছাড়া বাকি সদস্যরা সুস্থ আছেন বলে জানা গেছে। কাতারে অবস্থান করা বাংলাদেশ দলের এক সদস্য প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, ‘আমাদের দলের দুজনের করোনা ধরা পড়েছে। শুনেছি, একজন ম্যানেজার আমের ভাই, অন্যজন ফিজিও ফুয়াদ ভাই।’

কাল কাতার পৌঁছানোর পর বিমানবন্দরে বাংলাদেশের খেলোয়াড়সহ কোচিং স্টাফদের করোনার নমুনা নেওয়া হয়। আজই সেই ফলাফল এসেছে দলের হাতে। এর আগে করোনার কারণে কাতারে দলের সঙ্গেই যেতে পারেননি প্রধান কোচ জেমি ডে। কাল কাতার পৌঁছানোর পর তিন দিনের কোয়ারেন্টিনে আছে বাংলাদেশ দল। তবে কোয়ারেন্টিনে থাকলেও জিম ও সুইমিং পুল ব্যবহারে ছাড় পাওয়ার কথা ছিল জামাল ভূঁইয়াদের। কিন্তু করোনা শনাক্ত হওয়ায় আজকের জিম সেশন বাদ দেওয়া হয়েছে। খেলোয়াড়দের রুম থেকে বের হওয়া নিষেধ বলে জানা গেছে। খেলোয়াড়দের খাবার পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে রুমেই।

বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইপর্বে কাতারের বিপক্ষে বাংলাদেশের ফিরতি ম্যাচটি ৪ ডিসেম্বর দোহায়। এর আগে ২৫ ও ২৮ নভেম্বর স্থানীয় দুটি ক্লাবের সঙ্গে দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলার কথা বাংলাদেশের।