• আজঃ শনিবার, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

দেশে থাকা মানুষগুলো কখনই প্রবাসীদের, না বলা কষ্টটা উপলব্ধি করতে পারবেননা।

বর্তমানের সিঙ্গাপুর আর বছর খানিক আগের সিঙ্গাপুরের মাঝে পার্থক্য আকাশ আর পাতাল। করোনা পরিস্থিতী কাটিয়ে অনেকেই কাজে ফিরলেও, আগের সেই আমেজ আর স্বাধীনতা নেই কাজের ক্ষেত্রে। নেই আগের মত ওভার টাইম, নেই আগের মতন বেতনটাও।

আগে লাখ টাকা বেতন পাওয়া প্রবাসীটা, বর্তমানে নিজের খরচ মিটিয়ে, পরিবারের খরচ মিটাতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে। কাজ করতে গিয়েও মানতে হচ্ছে বহু নিয়ম নিতী, মাঝে মাঝেই কারো কারো কাজ বন্ধ হয়ে যাচ্ছে ৭/১৪ দিনের জন্য। এই মুহুর্তে ঠিক ভাল নেই সিঙ্গাপুর প্রবাসীরা, হয়তো ভাল নেই অন্যান্য দেশের প্রবাসী ভাইয়েরাও।

দেশে থাকা পরিবার এবং আত্বিয় স্বজনদের অনুরোধ করবো, এই সময়টাতে আপনাদের প্রবাসে থাকা ভাই, বাবা, চাচা কিংবা অত্বিয়কে বাড়তি টাকার জন্য চাপ দিবেন না, টাকা না দিতে পারলে তাকে ভুল বুঝবেননা। কারন সমস্ত প্রবাসীগুলো বর্তমান সময়টাতে মানসিক ভাবে ভেঙ্গে পরেছে, ভাল নেই তাদের মন মানষিকতা, মনে নেই শান্তিও।

আগের মত কাজ নেই, নেই ওভার টাইম, তাই আসেনা আগের মত বেতনটাও। জানি দেশে থাকা মানুষগুলো কখনই প্রবাসীদের, না বলা কষ্টটা উপলব্ধি করতে পারবেননা। হয়তো তারা মুখ ফুটে অনেক কথাই বলতে গিয়েও বলতে পারেনা, কারন পরিবার টেনশন করবে বলে।

প্রবাসীদের নিজের বলে কিছু নেই, তারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে, রক্ত পানি করে, দিন রাত খেটে যায় শুধু পরিবারকে ভাল রাখতে, আত্বিয়দের বিপদ আপদে সাহায্য সহযোগিতা করতে। ঠিক এই মুহুর্তে দেশে থাকা কোন আত্বিয় যদি বিপদে পরে, কোন প্রবাসী ভাইয়ের কাছে টাকা ধার চান, আর সেই প্রবাসী ভাইটি যদি আপনাকে টাকা না দিতে পারে, দয়া করে ভুল বুঝবেননা। কারন, আমি আগেই বলেছি প্রবাসে সেই আগের দিনটা নেই, বর্তমানে।

জানিনা দেশে থাকা মানুষ, প্রবাসীদের জন্য কখনো দোয়া করেন কি’না। কিন্তু আপনারা জেনে রাখবেন, প্রতিটি প্রবাসী, দেশে থাকা তার পরিবার এবং আত্বিয়দের জন্য সব সময় দোয়া করে, তাদের কথা ভাবে এবং মনে প্রানে চায় খুব ভাল থাকুক দেশ ও দেশের প্রতিটি মানুষ।

সুমন সিকদার,
সিঙ্গাপুর প্রবাসী।