• আজঃ শনিবার, ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

১৬ হাজার কোটি টাকার ৮ ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন

সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠকে ১৬ হাজার ২৭১ কোটি ৪৮ লাখ ৮০ হাজার ২৯২ টাকার আটটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া  হয়েছে। এসব প্রস্তাবের মধ্যে আছে শিল্প মন্ত্রণালয়ের পাঁচটি, কৃষি মন্ত্রণালয়ের একটি, বিদ্যুৎ বিভাগের একটি এবং সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের একটি। এতে জিওবি থেকে ব্যয় করা হবে ১৫ হাজার ৬২৮ কোটি ২১ লাখ ২৬ হাজার ৪৯৩ টাকা এবং দেশীয় ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া হবে ৬৪৩ কোটি ২৭ লাখ ৫৩ হাজার ৭৯৯ টাকা।

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে এক ভার্চুয়াল সভায় ক্রয় প্রস্তাবগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়। সভায় কমিটির সদস্য, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সচিব ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে অর্থমন্ত্রী ও মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ড. আবু সালেহ মোস্তফা কামাল অনুমোদিত প্রকল্পের বিভিন্ন দিক সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। অতিরিক্ত সচিব জানান, শিল্প মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) রাষ্ট্রীয় পর্যায়ে চুক্তির মাধ্যমে সৌদি বেসিক ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (এসএবিআইসি) থেকে পঞ্চম লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক প্রিল্ড ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৫৬ কোটি ৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা। সৌদি আরবের একই প্রতিষ্ঠান থেকে ষষ্ঠ লটের ২৫ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাবও অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৫৬ কোটি ৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা। একই প্রতিষ্ঠান থেকে সপ্তম লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন বাল্ক গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমাদন দিয়েছে কমিটি। এতে ব্যয় হবে ৫৬ কোটি ৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা। এছাড়া, বিসিআইসি কর্তৃক আন্তর্জাতিক কোটেশনের মাধ্যমে সিঙ্গাপুরের আরিস ফার্টিলাইজারস গ্রুপ প্রাইভেট লিমিটেডের (স্থানীয় এজেন্ট: পোটন ট্রেডার্স, ঢাকা) কাছ থেকে প্রথম লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে  ৬৬ কোটি ৮৩ লাখ ৬৫ হাজার ৩৬২ টাকা। একই প্রতিষ্ঠানের মাধ‌্যমে সুইস সিঙ্গাপুর ওভারসিজ এন্টারপ্রাইজ প্রাইভেট লিমিটেডের কাছ থেকে প্রথম লটে ২৫ হাজার মেট্রিক টন ব্যাগড গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার আমদানির প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় ৬৬ কোটি ৮৬ লাখ ৬২ হাজার ৬৮৭ টাকা।

বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন করপোরেশন (বিএডিসি) ও রাশিয়ার জেএসসি ফরেন ইকোনমিক অ্যাসোসিয়েশন ‘প্রদিনটর্গ’ এর মধ্যে রাষ্ট্রীয় চুক্তির আওতায় ২০২০-২০২১ অর্থবছরে ১ লাখ ৮০ হাজার মেট্রিক টন মিউরেট অব পটাশ (এমওপি) সার আমদানির অপর একটি ক্রয় প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৩৪১ কোটি ৩৭ লাখ ১৫ হাজার ৭৫০ টাকা।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো) কর্তৃক ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় ৪২.৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্প স্থাপনে চায়না মেশিনারি ইঞ্জিনিয়ারিং করপোরেশনের (সিএমইসি) সঙ্গে ২৫ বছর মেয়াদি চুক্তি স্বাক্ষরের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ২৫ বছরে ওই কোম্পানিকে ১৫ হাজার ৩২৫ কোটি ৪৩ লাখ টাকা পরিশোধ করতে হবে।

সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের অধীনে খুলনা সড়ক বিভাগের আওতাধীন ‘দিঘুলিয়া (রেলগেট)-আড়ুয়া-গাজীরহাট-তেরখাদা সড়কের প্রথম কিলোমিটারে ভৈরব নদীর ওপর সেতু নির্মাণ’ প্রকল্পের সেতু নির্মাণসহ পূর্ত কাজে সর্বনিম্ন দরদাতা প্রতিষ্ঠান ওয়াহিদা কন্সট্রাকশন লিমিটেডকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এতে ব্যয় হবে ৩০২ কোটি ৭৮ লাখ ২৬ হাজার ৪৯৩ টাকা।

এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক হয়। সভায় খাদ্য অধিদপ্তর কর্তৃক ফরিদপুর, বরিশাল, ঝালকাঠী, ভোলা, নওগাঁ, সিলেট জেলায় ছয়টি রাইস মিল স্থাপন সংক্রান্ত প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) ভিত্তিতে বাস্তবায়ন হবে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত সচিব।