লোড বন্ধ করুন
  • আজঃ শনিবার, ১৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

করোনা চিকিৎসায় এবার অ্যাসপিরিনের ট্রায়াল

ব্যথা কিংবা জ্বরের ওষুধ হিসেবে পরিচিত অ্যাসপিরিন করোনার চিকিৎসায় কতটুকু কার্যকর তা জানতে ট্রায়াল শুরু করতে যাচ্ছে যুক্তরাজ্য। ট্রায়ালের উপ-প্রধান তদন্তকারী পিটার হরবি এ তথ্য জানিয়েছেন।

ট্রায়াল পরিচালনাকারী সংস্থা রিকভারি শুক্রবার তাদের ওয়েবসাইটে জানিয়েছে, রক্তের প্লাটিটেলের উচ্চমাত্রায় সক্রিয়তার কারণে করোনায় আক্রান্ত রোগীদের রক্ত জমাটের ঝুঁকি অনেক বেশি। অ্যাসপিরিনে রক্ত তরলীকরণ উপাদান থাকায় এটি রক্ত জমাটের ঝুঁকি কমায়। ট্রায়ালের উপ-প্রধান তদন্তকারী পিটার হরবি বলেন, ‘এটি (অ্যাসপিরিন) উপকারী হতে পারে তা বিশ্বাস করার যৌক্তিক কারণ রয়েছে এবং এটি নিরাপদ, স্বল্পমূল্যের এবং সব জায়গায় পাওয়া যায়।’

রিকভারির ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অন্তত দুই হাজার রোগীকে প্রতিদিন ১৫০ মিলিগ্রাম অ্যাসপিরিন দেওয়া হতে পারে। এর বিপরীতে আরও দুই হাজার রোগীকে অ্যাসপিরিন ছাড়া মানসম্মত নিজস্ব তত্ত্বাবধানে রাখা হবে।

এর আগে রিকভারি করোনায় চিকিৎসায় সাধারণ অ্যান্টিবায়োটিক অ্যাজিথ্রোমাইসিন ও রিজেরনন ফার্মাসিউটিক্যালসের অ্যান্টিবডি ককটেলের ট্রায়াল চালিয়েছিল। এই ট্রায়ালের ফল অবশ্য এখনও প্রকাশিত হয়নি।