• আজঃ বুধবার, ২০শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৫ই অক্টোবর, ২০২২ ইং

বিদেশে যাওয়ার পাসপোর্টের কথা বলে আটকে রেখে কিশোরীকে ধর্ষণ

বিদেশে উচ্চ বেতনের চাকরির প্রলোভন দিয়ে পাসপোর্ট তৈরির নামে ডেকে গোপন স্থানে নিয়ে আটকে রেখে এক কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে জয়পুরহাটে আবদুল কুদ্দুস (৫৩) নামে এক ইউপি সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। বুধবার (৪ নভেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আটক আবদুল কুদ্দুস জয়পুরহাট সদর উপজেলার দোগাছী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও সদর উপজেলার রাঘবপুর গ্রামের মৃত আইয়ুব আলীর ছেলে।

বুধবার সন্ধ্যায় ওই নির্যাতিত কিশোরীর ফুফাতো ভাই জয়পুরহাট র্যাসব ক্যাম্পে গিয়ে ওই ইউপি সদস্য আবদুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালে বুধবার মধ্যরাতে জয়পুরহাট সদর উপজেলার চকশ্যাম এলাকা থেকে র্যা্ব সদস্যরা তাকে আটক করে জয়পুরহাট সদর থানায় সোপর্দ করে।

র‌্যাব-৫, জয়পুরহাট ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম মোহাইমেনুর রশিদ জানান, জয়পুরহাটের দোগাছী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও কথিত আদম ব্যবসায়ী আবদুল কুদ্দুস জয়পুরহাট পৌরসভার খনজনপুর এলাকার দরিদ্র পরিবারের ওই কিশোরীকে ইউপি সদস্য সৌদি আরবে উচ্চ বেতনের চাকরি পাইয়ে দেয়ার প্রলোভন দেয়। এতে তার পরিবারের সদস্যরা মেয়েকে বিদেশে পাঠাতে সম্মত হন এবং তার পাসপোর্ট তৈরির জন্য ইউপি সদস্য আবদুল কুদ্দুসের কথামতো বুধবার বিকালে ওই কিশোরী তার সঙ্গে দেখা করতে যায়।

তিনি বলেন, ওই কিশোরী দেখা করতে গেলে সে কৌশলে তাকে একটি গোপন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে আটকে রাখে। সন্ধ্যায় ওই কিশোরী নিজ বাসায় না ফেরায় তার ফুফাতো ভাই বিষয়টি র‌্যাব ক্যাম্পে গিয়ে জানান। ওই রাতেই অভিযান চালিয়ে পৌরসভার খনজনপুর এলাকা থেকে নির্যাতিত কিশোরীকে উদ্ধারের পর তাকে জয়পুরহাট আধুনিক জেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই রাতেই সদরের চকশ্যাম গ্রামে অভিযান চালিয়ে আদম ব্যাপারী ইউপি সদস্য আবদুল কুদ্দুসকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

এ ব্যাপারে আটক আবদুল কুদ্দুসকে জয়পুরহাট থানায় সোপর্দ করার পর নির্যাতিত কিশোরীর মা বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দায়ের করেছেন।

উল্লেখ্য, আটক ইউপি সদস্য আবদুল কুদ্দুসের বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় বিদেশে লোক পাঠানোর নামে প্রতারণার একাধিক মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।