• আজঃ সোমবার, ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৭শে জুন, ২০২২ ইং

ভোলায় ৭০৪টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের কারণে দ্বীপ জেলা ভোলায় সম্ভাব্য দুর্যোগ বিবেচনায় নিয়ে ৭০৪টি আশ্রয়কেন্দ্রে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। একই সঙ্গে বিভিন্ন প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা নিয়েছে জেলা প্রশাসন।

আজ শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) সকালে ভোলা জেলা প্রশাসক মো. মাসুদ আলম ছিদ্দিকের সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ের হলরুমে জেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটির জরুরি প্রস্তুতিসভা অনুষ্ঠিত হয়। ওই সভায় সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলোকে জেলা প্রশাসক সতর্কতামূলক নির্দেশনা দেন। সভায় জেলা প্রশাসক জানান, ভোলার ৭ উপজেলায় ৮টি কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে এবং ২০টি মেডিকেল টিম গঠন করা হয়েছে। জেলায় ৭০৪টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার প্রস্তুত রয়েছে। প্রতিটি প্যাকেটের খাবার একটি পরিবার ৬ থেকে ৭ দিন খেতে পারবে।

এছাড়াও ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি), রেড ক্রিসেন্টের কমপক্ষে ১৩ হাজার ৬০০ স্বেচ্ছাসেবী সতর্ক সংকেত প্রচার শুরু করেছে বলে জানান তিনি।

সভায় অন্যান্যদের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মামুন আল ফারুক, ভোলা সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মো. মিজানুর রহমান, ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) মো. শাহাবুদ্দিন, ভোলা রেড ক্রিসেন্টের সেক্রেটারি মো. আজিজুল ইসলাম, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-সহকারী পরিচালক মো. জাকির হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।