মাশরুম নিয়ে স্বপ্নের কাছাকাছি মাগুরার বাবুল আক্তার

মাগুরার অন্যতম সেরা উদ্যোক্তা , মাশরুম সম্রাট খ্যাত বাবুল আক্তার, যিনি নিজের শারীরিক প্রতিবন্ধকতা জয় করে, মাগুরার বড়খড়ি গ্রামের নিভৃত পল্লীতে গড়ে তুলেছেন বিশাল মাশরুম পল্লী, সারাদেশের অগত্য ১০,০০০ চাষী তার এই মাশরুম উৎপাদনের সাথে জড়িত।

চাষীদের উৎপাদিত মাশরুম থেকে তিনি ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য সম্পূরক খাবার ( যা বহুমূত্র রোগ নিয়ন্ত্রণে বিশেষ কার্যকর ভূমিকা রাখতে সহায়ক ) তৈরি করে সারাদেশে ও পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে রপ্তানি করে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন। প্রাপ্তি হিসেবে পেয়েছেন সেরা কৃষি উদ্যোক্তা পুরস্কার ২০১৯ । কিন্তু স্বপ্নবাজ বাবুল আক্তার এই সামান্য প্রাপ্তিতেই কি থেমে যাবেন ?

বাবুল আক্তার নতুন স্বপ্নের পথে যাত্রা শুরু করেছেন উৎপাদন করছেন ঔষধি গ্যানোডার্মা মাশরুম, উচ্চমূল্যের এই মাশরুমের নির্যাস থেকে তিনি তৈরি করবেন বিভিন্ন ধরনের আয়ুর্বেদী ঔষধ ও কনজ্যুমার প্রোডাক্টস যেমন সাবান, শ্যাম্পু ও পেস্ট। তিন একর জায়গা নিয়ে তৈরি করেছেন একটি বিশাল মাশরুম ইন্ডাস্ট্রি, কারখানাটি চালু হতে আর মাত্র অল্প কিছুদিন সময় লাগবে, এখানে আরো প্রায়ই শতাধিক লোকের কর্মসংস্থান হবে এখানে।

পাশাপাশি বাবুল আকতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন নতুন আগ্রহী উদ্যোক্তাদের প্রতি যারা বাণিজ্যিকভাবে মাশরুম উৎপাদন করতে চান, এজন্য তিনি প্রতিমাসের ১০,১১ ও ১২ তারিখে একটি প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আয়োজন করেছেন। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তরুণ উদ্যোক্তারা হাতে কলমে বাস্তব ভিত্তিক প্রশিক্ষণ নিতে পারবেন।

মাগুরাতে অনেকেই অর্থবিত্ত ও বৈভবের মালিক হয়েছেন ঠিকই, কিন্তু বাবুলের মত এত কর্মসংস্থান আজও কি কেউ করতে পেরেছেন? বাবুলের মত আরো অনেক স্বপ্নবাজ তরুণ উদ্যোক্তা এভাবে এগিয়ে আসুক, কর্মসংস্থান হোক হাজারো বেকারের, হাসি ফুটুক শত শত পরিবারের।

If you like the post, share it and give others a chance to read it.

এম ফেরদৌস রেজা

nogor24 বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি ব্লগসাইট। এই সাইটের লক্ষ্য হল বিভিন্ন বিষয় সম্পর্কে সহজে বোধগম্য এবং সঠিক খবর এবং তথ্য প্রদান করা।