• আজঃ সোমবার, ১৯শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩রা আগস্ট, ২০২০ ইং, ১৪ই জিলহজ্জ, ১৪৪১ হিজরী

চলতি মাসের ২৭ দিনেই রেমিটেন্স এসেছে ২.২৪২ বিলিয়ন ডলার

করোনাভাইরাসের বৈশ্বিক মহামারীদের মধ্যেও বিপুলসংখ্যক রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা। চলতি জুলাই মাসের ২৭ দিনেই ২.২৪২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রেমিটেন্স পাঠিয়েছেন তারা, যা বাংলাদেশের ইতিহাসে কোনো একক মাসে সর্বোচ্চ পরিমাণ রেমিটেন্স। মাস শেষে ২.৫০ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

রপ্তানি আয় নিম্নমুখী থাকার পরও রেমিটেন্স প্রবাহের এই ঊর্ধ্বগতির কারণে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩৭ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। গতকাল ২৮ জুলাই, মঙ্গলবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গত জুন মাসে দেশে ১.৮৩৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রেমিটেন্স এসেছিল। যা ছিল গত বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ৩৯ শতাংশ এবং মে মাসের চেয়ে প্রায় ২২ শতাংশ বেশি। চলতি মাসে মাত্র ২৭ দিনেই সেই রেকর্ডও ভেঙে গেছে। প্রবাসী আয়ের ঊর্ধ্বমুখী এ ধারা অব্যাহত থাকার জন্য সরকারের সময়োপযোগী ২ শতাংশ নগদ প্রণোদনাসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব রয়েছে।

২৭ জুলাই পর্যন্ত দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩৭.১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের নতুন রেকর্ড ছুঁয়েছে উল্লেখ করে এতে আরো বলা হয়, বাংলাদেশের ইতিহাসে এ যাবতকালের মধ্যে এটি সর্ব্বোচ্চ। গত ৩০ জুন দেশে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ছিল ৩৬.০১৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। তখন পর্যন্ত সেটিই ছিল বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ রিজার্ভ। মাত্র এক মাসের ব্যবধানে তা ৩৭.১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রেকর্ডে গিয়ে ঠেকেছে।


ফেসবুকে লাইক দিন