লোড বন্ধ করুন
  • আজঃ বুধবার, ১৩ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৬শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

তানোরে মাতাল কাউন্সিলরের হাতে ব্যবসায়ী লাঞ্চিত

রাজশাহী প্রতিনিধি:


রাজশাহীর তানোর উপজেলার মুণ্ডুমালা পৌরসভার মাতাল কাউন্সিলর মুণ্ডুমালা দক্ষিন পাড়াগ্রামের মৃত লাকু সরদারের পুত্র মুস্তাফিজুর রহমান বাবুর বিরুদ্ধে অন্যের পাওনা টাকা দালালির মাধ্যমে আদায় করতে গিয়ে কবির নামের এক ব্যবসায়ীকে লাঞ্চিত করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। চলতি মাসের ১৪জুলাই সোমবার মুণ্ডুমালা স্কুলের পূর্ব দিকে চা মুদির দোকানে ঘটে লাঞ্চিত হবার ঘটনাটি।

কাউন্সিলর বাবুর মাতলামির ঘটনায় মুণ্ডুমালা বাজারের বাসিন্দা থেকে শুরু করে ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন, সেই সাথে তাঁর এমন অমানবিক কর্মকাণ্ডে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। শুধু তাই না কাউন্সিলর বাবু প্রতি নিয়তই মাহালি পাড়ায় চোলাই মদ সেবন করলেও প্রশাসন দেখেও না দেখার ভান করার কারনে মুণ্ডুমালা ফুলিশ ফাঁড়ির বিরুদ্ধেও উঠেছে নানা প্রশ্ন।

জানা গেছে, উপজেলার মুণ্ডুমালা পৌর এলাকার তালুকপাড়াগ্রামের সাইদুর রহমানের পুত্র চাউল ব্যবসায়ী কবির আলম চলতি বছরের প্রায় দেড়মাস আগে মুণ্ডুমালা উত্তরপাড়াগ্রামের এমাজ উদ্দিন মোল্লার পুত্র মুস্তাফিজুরের নিকট হতে ৩০ মন ধান কিনেন। ধানের সব টাকা দেয়া হলেও ২৫০০ টাকা বাকি থাকে। গত রোববার সেই টাকা নিতে মুস্তাফিজুর কাউন্সিলর বাবুকে নিয়ে কবিরের বাড়িতে যান।

পরদিন সোমবার ১১ টা থেকে ১২ টার মধ্যে টাকা দিতে চান কবির আলম। এঅবস্থায় গত সোমবার সময়ের আগেই মুণ্ডুমালা স্কুলের পূর্ব দিকে রাসেদের চায়ের দোকানে কবির চা খাওয়া অবস্থায় কাউন্সিলর বাবু এসে টাকা দিতে বলে কবিরের শার্টের কলার ধরে শার্ট ছিড়ে মোবাইল ফোন নিয়ে নেয়।

ব্যবসায়ী লঞ্চিত হওয়া কবির জানান আমি দোকানে বসে চা খাচ্ছি এসময় কাউন্সিলর বাবু ও তাঁর সাথে আনোয়ার নামের ব্যাক্তি এসে টাকা চান। আমি তাদেরকে বলি ১২টার মধ্যেই টাকা দিয়ে দিব। একথা বলা মাত্রই কাউন্সিলরের সাথে থাকা ব্যাক্তি বলে আমাকে চড় থাপ্পড় মারতে।

এসময় কাউন্সিলর আমার শার্টের কলার ধরে জামা ছিড়ে ১৮শো টাকা দামের মোবাইল নিয়ে চলে যায়। অনেকে নিষেধ করলেও কারো কথা শুনেনি। কিছুক্ষন পর টাকা জোগাড় করে মুণ্ডুমালা মাষ্টারের মোড়ের যাত্রী ছাউনিতে কাউন্সিলর বাবু না এসে আনোয়ার কে পাঠায়। তাঁর হাতে টাকা দেবার পর মোবাইল ফেরত দেয়। অথচ যিনি টাকা পাবেন তাঁর কোন হুদিস ছিলনা।

স্থানিয়রা জানান, কাউন্সিলর বাবু প্রায় দিন মুণ্ডুমালা মাহালিপাড়ায় তাঁর ব্যবহিত বাইক রেখে চোলাই মদ সেবন করে অন্যের দালালী করায় তাঁর কাজ। প্রায় সময় মাতাল অবস্থায় থেকে যার তাঁর সাথে খারাপ ব্যবহার করে থাকে।