লোড বন্ধ করুন
  • আজঃ শনিবার, ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

হংকংয়ের ৩০ লাখ অধিবাসীর ব্রিটেনে থাকার ও কাজের অনুমতি

নগর২৪ অনলাইন ডেস্ক


হংকংয়ে চলমান বিক্ষুব্ধ পরিস্থিতিতে সেখানকার ৩০ লাখ অধিবাসীকে ব্রিটেনে বসবাস করার সুযোগ দেওয়ার কথা ভাবছে দেশটির সরকার। গতকাল বুধবার সিএনএন’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন গতকাল বলেছেন, তার সরকার ব্রিটিশ ন্যাশনাল ওভারসিজ (বিএনও) পাসপোর্টধারীদের দেওয়া প্রতিশ্রুতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। 

এর ফলে হংকংয়ের প্রায় ৩০ লাখ বাসিন্দা ব্রিটেনে বসবাস করার সুযোগ পাবে বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়। ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ‘প্রধানমন্ত্রীর প্রশ্ন’ পর্ব চলাকালে তিনি বলেন, ‘আমরা পরিষ্কার করে বলতে চাই, চীন যদি (নিপীড়নের) পথে হাঁটতে থাকে তাহলে আমরা বিএনও পাসপোর্টধারীদের ব্রিটেনে প্রবেশের সুযোগ করে দিব। ব্রিটেনে তাদের বসবার ও কাজের সুযাগ করে দিব। এরপর নাগরিকত্বের জন্যে আবেদনের সুযোগ করে দিব।

প্রতিবেদন মতে, ব্রিটেনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে— ‘এই নতুন অভিবাসন’ নীতির মানে হলো হংকংয়ের যোগ্যতাসম্পন্ন বাসিন্দাদের এখন ব্রিটেনে থাকার ও কাজের অনুমতি মিলতে পারে।

আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই এই নীতির বাস্তবায়ন শুরু হতে পারে উল্লেখ করে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, ‘এই মধ্যবর্তী সময়ে বিএনও পাসপোর্টধারীদের কেউ ব্রিটেনে আসতে চাইলে তারা অভিবাসনের নিয়মনীতি মেনে আসতে পারেন।

ব্রিটেনের অধীনে থাকা হংকং ১৯৯৭ সালে চীনের কাছে হস্তান্তর চুক্তিতে বলা হয়েছিল হংকংয়ে বিরাজমান শাসনব্যবস্থা ৫০ বছরের মধ্যে বদলানো যাবে না। কিন্তু, সম্প্রতি চীন স্বায়ত্তশাসিত হংকংয়ের ওপর নিজের শাসনব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করতে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করে।

সেসব উদ্যোগের অংশ হিসেবে চীন গত ৩০ জুন বিতর্কিত ‘নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইন’ হংকংয়ে প্রয়োগ করলে গণতন্ত্রপন্থিরা বিক্ষোভ শুরু করেন। গতকাল ১ জুলাই হংকং হস্তান্তরের ২৩তম বার্ষিকীতে বিতর্কিত আইনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করায় অন্তত ৩০০ জনকে আটক করা হয়।