• আজঃ বৃহস্পতিবার, ২৫শে আষাঢ়, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই জুলাই, ২০২০ ইং, ১৯শে জিলক্বদ, ১৪৪১ হিজরী

চেয়ারম্যান ব্রজেনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার, শাস্তির দাবিতে উত্তেজনা

সারোয়ার হোসেন,রাজশাহী প্রতিনিধিঃ


বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বুকে ধারণ লালন ও পলন করে ছাত্র জীবন থেকে উঠে আশা জনপ্রিয় নওগাঁর মান্দা উপজেলার তেতুলিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শ্রী ব্রজেন্দ্রনাথ সাহা ব্রজেনের সুনাম ও ব্যক্তি ইমেজ ক্ষুর্ণ করে তাকে দলের হাইকমান্ডের কাছে ফাঁসাতে গভীর চক্রান্তে লিপ্ত হয়ে ষড়যন্ত্র চালাচ্ছে নিজ দলের আওয়ামী লীগ বিরোধী কিছু (আক্যমা) বগি নেতা বলে অভিযোগ উঠেছে।

আর এমন ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উঠেছে মান্দা উপজেলার তেতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের আক্যমা বগি সভাপতি গাজিউর রহমান গাজার বিরুদ্ধে। এতে করে নিজ দলের সভাপতি হয়ে দলীয় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে অপপ্রচার করার বিষয়টি দলের নেতাকর্মী সমর্থকদের মধ্যে ফাঁস হয়ে পড়লে সভাপতি আক্যমা বগি নেতা গাজিউর রহমান গাজার বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠেছে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী সমর্থকরা।

আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়ে আওয়ামী লীগ দলীয় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করায় এলাকাজুড়ে দেখা দিয়েছে চাঞ্চল্যকর অবস্থা ও নেতাকর্মীদের মধ্যে বিরাজ করছে চাপা ক্ষোভ উত্তেজনা। এছাড়াও যেকোন সময় আক্যমা বগি সভাপতি গাজিউর রহমান গাজাকে দিতে পারে গণধাওয়া বলেও তৃণমূল নেতাকর্মী সমর্থকদের মধ্যে গুঞ্জন বইছে।

নেতাকর্মী সূত্রে জানা গেছে, মান্দা উপজেলার ৯নং তেতুলিয়া ইউনিয়নের বর্তমান আওয়ামী লীগ দলীয় জনপ্রিয় চেয়ারম্যান শ্রী ব্রজেন্দ্রনাথ সাহা ব্রজেনের বিরুদ্ধে মিথ্যা অবান্তর অভিযোগ তুলে সুকৌশলে চেয়ারম্যানকে দলের নেতাকর্মী সমর্থকদের কাছে জনপ্রিয়তা নষ্ট করতে বিভিন্ন জাতীয় স্থানীয় পেপার পত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে অপপ্রচার চালাচ্ছেন নিজ দলের সভাপতি গাজিউর রহমান গাজা।

এতে করে নিজ দলের সভাপতি হয়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মনোনীত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা মানে শয়ং শেখ হাসিনার নৌকার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করা হচ্ছে। যার ফলে আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়ে আওয়ামী লীগ বিরোধী ষড়যন্ত্র করায় গাজিউর রহমান গাজার বিরুদ্ধে দলীয় সাংগঠনিক ব্যবস্থা গ্রহণ করে তার শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তেতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতাকর্মী সমর্থকরা।

এ বিষয়ে তেতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজিউর রহমান গাজার মুঠো ফোনে একাধিকবার ফোন দিয়ে তিনি ফোন রিসিভ না করাই তার কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তেতুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও সাবেক তেতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শ্রী ব্রজেন্দ্রনাথ সাহা ব্রজেন বলেন, আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও এমপি এমাজউদ্দীন প্রামানিকের মনোনীত চেয়ারম্যান।

আমি আমার প্রাণপ্রিয় এমপি এমাজউদ্দীন প্রামানিকের দিকনির্দেশনায় ইউনিয়ন বাসীর উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছি। এতে করে পিছনে থেকে কে কি বলছে তা শোনার সময় এখন না এখন শুধু করোনা মহামারি সামনে রেখে অসহায় দরিদ্র মানুষের পাশে থেকে তাদের সেবা করার সময়। তাই কুচক্রী মহল যতই ষড়যন্ত্র করবে ততই জনপ্রিয় শক্তিশালী তেতুলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ দল হয়ে উঠবে বলে তিনি জানান।


ফেসবুকে লাইক দিন