• আজঃ শনিবার, ১৮ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২রা জুলাই, ২০২২ ইং

সৌদি আরব জেদ্দায় ফের মসজিদে নামাজ বন্ধ

সৌদি আরব প্রতিনিধিঃ


সৌদি আরবের জেদ্দায় আবারো কারফিউয়ের সময় বৃদ্ধি করা হল। সেই সাথে সেখানে ফের মসজিদে নামাজ বন্ধ করা হয়েছে। তবে মসজিদে নামাজ বন্ধ হলেও চালু থাকছে আজান। সৌদি প্রেস এজেন্সি ( এসপিএ) সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এই তথ্য নিশ্চিত করেছে।

কারফিউ শুরু হবে বিকেল তিনটায়। শেষ হবে ভোর ছয়টায়।

চলমান করোনা সঙ্কটে সমগ্র সৌদি আরবে চলছিল কারফিউ শিথিলের দ্বিতীয় ধাপ।এই ধাপে দিনভর অফিস, আদালত ব্যবসায়িক কর্মযজ্ঞ চলার পর, রাতের ৮ টা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত চলছিল কারফিউ । তবে, পরিস্থিতি বিবেচনাতে জেদ্দার কারফিউর সময় এবং বিচরণক্ষেত্র সীমাবদ্ধ করা হলো আবারও।

দেখে নেওয়া যাক সার্বিকভাবে জেদ্দাতে কি কি নিয়ম পরিবর্তিত হল:-

  1. রাত ৮টা পরিবর্তে বিকাল ৩ টা থেকে কারফিউ শুরু হয়ে সকাল ৬টায় শেষ হবে।
  2. মসজিদে শুধু আজান হবে। নামাজ পড়া বন্ধ থাকবে।
  3. সরকারী এবং বেসরকারী অফিস,আদালত সমূহ বন্ধ থাকবে
  4. ৫ জনের বেশী জমায়েত হওয়া একেবারেই নিষিদ্ধ।
  5. খাবার হোটেল আবার বন্ধ করা হল। শুধুমাত্র পার্সেল/ টেকঅ্যাওয়ে নেওয়া যাবে।
  6. অভ্যন্তরীণ বিমান চলাচল এবং ট্রেন, বাস চলাচল করবে।
  7. কারফিউ শিথিল এর সময় অর্থাৎ সকাল ছয়টা থেকে বিকেল তিনটে পর্যন্ত জেদ্দা থেকে বের হওয়া যাবে এবং জেদ্দায় প্রবেশ করা যাবে।

তবে ইতিপূর্বে উল্লেখিত অন্যান্য নির্দেশনা সমূহ সময় বলবত থাকবে।

গত ২০ মার্চ সৌদি আরবের সকল মসজিদে নামাজ পড়া স্থগিত হয়ে যাবার পর দীর্ঘ ১১ সপ্তাহ পর আজ ( ৬ জুন) সৌদি আরবের মসজিদ সমূহে আবার জুম্মার নামাজ অনুষ্ঠিত হল। আবার আজই জেদ্দায় মসজিদে নামাজ আদায় স্থগিত হয়ে গেল।

উল্লেখ্য যে আগামীকাল ৬ জুন থেকে আগামী ২১ জুন পর্যন্ত ১৫ দিনের এই বিধিনিষেধগুলো কেবলমাত্র জেদ্দার জন্য প্রযোজ্য। তবে প্রয়োজনে সৌদি আরবের যে কোন অঞ্চলেই পরিস্থিতির সাপেক্ষে এই বিধিনিষেধ সমূহ চালু হতে পারে।

প্রসঙ্গগত আরো উল্লেখ্য যে তিনটি ধাপে সৌদি আরবের জীবনযাত্রা স্বাভাবিক করার পদক্ষেপ নিয়েছিল সৌদি সরকার।

এই তিন ধাপের দ্বিতীয় ধাপে মক্কা নগরী ব্যাতিত সৌদি আরবের সমগ্র অঞ্চলে কার্ফিউ শিথিল করে ভোর ৬টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সকল সৌদি নাগরিক ও প্রবাসীদের চলাচলের সুযোগ করে দেওয়া হয়।

এই ধাপে মক্কা নগরী ব্যাতিত সৌদি আরবের অন্য সকল অঞ্চলের মসজিদ সমূহে জুম্মার নামাজসহ অন্য সকল নামাজ চালু হয়েছে । মক্কা ব্যাতিত সৌদি আরবের অন্য সকল অঞ্চলের প্রায় ৯০ হাজার মসজিদ নামাজের জন্য খুলে দেওয়া হয়েছে।

চূড়ান্ত সতর্কতা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সকল সরকারী ও বেসরকারী অফিস এই ধাপে চালু করে দেওয়া হয়েছে। তবে কর্মচারী ও কর্মকর্তাদের এখানে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং এটি বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

চালু হয়েছে অভ্যন্তরীণ বিমান ব্যাবস্থা। তবে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট এখনো চালু হয়নি । সকল ধরনের রেস্টুরেন্ট ও ক্যাফে চালু হয়ে গিয়েছে তবে ৫০ জনের বেশী কোথাও লোকসমাগম করতে দেওয়া হচ্ছে না।

বিউটি ও সাধারণ সেলুন, স্পোর্টস ও হেলথ ক্লাব, সকল ধরনের বিনোদন কেন্দ্র ও মুভি এবং সিনেপ্লেক্স বন্ধ রাখা হয়েছে।এবং তৃতীয় ধাপ শুরু হবে ২১ জুন থেকে। এই ধাপে সৌদি আরবে সকল নিষেধাজ্ঞাই উঠিয়ে নেওয়া হবে।

তবে পরিস্থিতি সাপেক্ষে যে কোন অঞ্চলেই আবার কারফিউ আরোপ করা হতে পারে।সেই সাথে আবার বন্ধ হয়ে যেতে পারে মসজিদে নামাজ, শপিংমল, দোকানপাঠ, অফিস আদালত ব্যাবস্থা প্রতিষ্ঠান ইত্যাদি। বন্ধ হতে পারে সকল কর্মযজ্ঞ।

দুঃখিত! কপি/পেস্ট করা থেকে বিরত থাকুন।