লোড বন্ধ করুন
  • আজঃ শনিবার, ১৬ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জানুয়ারি, ২০২২ ইং

নোয়াখালীতে ৩০ হাজার মানুষের কাছে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন – জাহাঙ্গীর আলম

নোয়াখালী প্রতিনিধিঃ


করোনাভাইরাসের কারণে (কোভিড-১৯) সৃষ্ট পরিস্থিতিতে নোয়াখালী-১ সংসদীয় আসন অর্থাৎ চাটখিল ও সোনাইমুড়ি উপজেলার ৩০ হাজার মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী এবং নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আলহাজ জাহাঙ্গীর আলম। ব্যক্তিগত ও আজিজা ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে তিনি অসহায় মুক্তিযোদ্ধা, ইমাম-মুয়াজ্জিন, কৃষক, দলীয় নেতাকর্মী, সাংস্কৃতিক কর্মী, শ্রমিকসহ করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত এ ৩০ হাজার মানুষের মাঝে খাদ্য ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করেন।

জাহাঙ্গীর আলমের পক্ষে সোনাইমুড়িতে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) উপস্থিতিতে এসব সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুমিনুল ইসলাম বাকের, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান নিজামউদ্দিন সুজন, জেলা যুবলীগের সদস্য আবু ছায়েম, উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী লুবনা মরিয়ম সুবর্ণা প্রমুখ।

একই সময় চাটখিল উপজেলায় নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) উপস্থিতিতে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জাহাঙ্গীর, চাটখিল পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ উল্যাহ পাটোয়ারী, নোয়াখালী জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মাসুদুর রহমান শিপন, উপজেলা আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক আহসান হাবীব সমীর, উপজেলা মহিলা লীগের সভানেত্রী শামীমা আক্তার মেরী প্রমুখ।

পাশাপাশি দুই উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের মাঝে করোনাভাইরাস প্রতিরোধী সুরক্ষা সামগ্রী এবং সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়। জীবাণুনাশক ছিটানো হয়েছে মসজিদ, মাদরাসা ও মন্দিরে।

ব্যক্তিগত সুরক্ষা সামগ্রীর মধ্যে ছিল ২৫ হাজার পিস সার্জিক্যাল মাস্ক, ১৫০ পিস পিপিই, ৫০ পিস পিপি গাউন, ১২ হাজার পিস হ্যান্ড স্যানিটাইজার (হেক্সিসল), আট হাজার পিস হ্যান্ড গ্লাভস। খাবার সামগ্রীর প্যাকেটে ছিল উল্লেখযোগ্য পরিমাণ চাল, আলু, মসুর ডাল, সয়াবিন তেল ও সাবান।

জানা গেছে, করোনা সংকটের শুরু থেকে ধাপে ধাপে সহায়তা কার্যক্রম চালিয়ে আসছেন জাহাঙ্গীর আলম। তার এই প্রয়াস সাহস জুগিয়েছে প্রান্তিক মানুষকে। এই দুঃসময়ের মধ্যে ঈদুল ফিতর এলে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় মানুষের ঘরে ঈদের আনন্দ ছড়িয়ে দেয়ার চ্যালেঞ্জ নেন জাহাঙ্গীর আলম। ঈদকে সামনে রেখে দুই উপজেলার বেকার ও কর্মহীন মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ শুরু করেন তিনি। তাছাড়া রাজনৈতিক নেতাকর্মী, গণমাধ্যমকর্মী, বিভিন্ন পেশাজীবী ও সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনের প্রতিনিধির কাছে পৌঁছে যায় তার ঈদ উপহার। দুই উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ৫০০০ শিশুর মাঝেও খাবার বিতরণ করা হয়। জাহাঙ্গীর আলমের পক্ষে এসব শিশুখাদ্য বিতরণ করেন জেলা পরিষদের সদস্য মাসুদুর রহমান শিপন।

এ বিষয়ে আলহাজ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে আমরা নিজ নিজ সংসদীয় এলাকায় করোনা মোকাবিলায় সাধারণ মানুষের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছি। যতদিন দেশে করোনার প্রভাব থাকবে ততদিন এ সাহায্য অব্যাহত থাকবে।