• আজঃ বৃহস্পতিবার, ১৬ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১লা অক্টোবর, ২০২০ ইং

পবিত্র কাবা শরীফ অবমাননাকারী ভারতীয় নাগরিক গ্রেফতার

ক্বাবা শরীফ নিয়ে ফেসবুকে অবমাননাকর লেখা পোষ্ট করার সৌদি আরবে গ্রেফতার হয়েছেন ভারতীয় নাগরিক হরীশ ব্যাঙ্গেরা! ফেসবুকে কাবা শরীফের স্থানে আরেকটি রাম মন্দির স্থাপন করার পরামর্শ দিয়ে পোষ্ট করেছিলেন তিনি। গ্রেফতারের পরে তিনি দাবী করছেন, অবমাননাকর পোষ্ট দেয়া ফেসবুক আইডিটি তার নয়!

কাবা শরীফ অবমাননা করায় গ্রেফতার
হরীশ ব্যাঙ্গেরা (Harish Bangera) ভারতের কর্ণাটক প্রদেশ থেকে আসা একজন সৌদি আরব প্রবাসী। তিনি বিগত ৭ বছর ধরে সৌদি আরবের একটি প্রতিষ্ঠানে এয়ার কন্ডিশনার টেকনিশিয়ান হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

তার নামে্র একটি আইডি থেকে কাবা শরীফ এর ছবি দিয়ে পোষ্ট করা হয় “এখানে পরবর্তী রাম মন্দির করা হবে, সকল হিন্দু ভাইয়েরা যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকুন। মোদি আমাদের সাথেই আছেন।”

তার এই পোষ্টের পরে তাকে তার কোম্পানি, Gulf Carton Factory Co. থেকে বহিষ্কার করা হয়, এবং কোম্পানির তরফ থেকে লিখিতভাবে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীকে জানানো হয় এই ব্যাপারে। পরবর্তীতে ২২শে ডিসেম্বর সৌদি আরব পুলিশ হরীশ ব্যাঙ্গেরাকে গ্রেফতার করে।

এব্যাপারে তার স্ত্রী জানান, হরীশ বেশ কয়েক দিন আগেই নিজের ফেসবুক আইডি বন্ধ করে দিয়েছিলেন, এবং তার আইডি বন্ধ করে দেবার পর পরই তার নামে এই আইডিটি খুলে এরকম অবমাননাকর পোষ্ট দেয়া হয়েছে। হরীশের পুরাতন আইডি থেকে ছবি ও তথ্য সংগ্রহ করে হরীশকে বিপদে ফেলতেই অন্য কেউ এই ফেইক আইডি ব্যবহার করে এরকম পোষ্ট দিয়েছেন।

উল্লেখ্য যে, আলোচ্য আইডিটি খোলা হয়েছে ২০ই ডিসেম্বরে, এবং হরীশ ব্যাঙ্গেরা গ্রেফতার এর পর পরই ২৩শে ডিসেম্বর আইডিটি বন্ধ করে ফেলা হয়েছে। এই ঘটনাগুলো ইতিমধ্যেই পুলিশকে জানিয়েছেন হরীশ এর স্ত্রী।

হরীশ ব্যাঙ্গেরার এই পোষ্টে ক্ষুদ্ধ স্থানীয়রা। তারা কাবা শরীফ অবমাননা করার জন্য হরীশ এর বিচার কামনা করছেন।

হরীশ ব্যাঙ্গেরার দ্রুত মুক্তির জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছে ভারতীয় এমব্যাসি এবং সৌদি আরবের বেশকিছু ভারতীয় সংগঠন। তাদের দাবী, হরীশকে বিপদে ফেলার জন্য এবং সৌদি আরবে কর্মরত ভারতীয় প্রবাসীদের প্রতি বিরূপ মনোভাব আনার জন্যই কেউ বা কোন সংগঠন উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভাবে ফেক আইডি খুলে এই কাজটি করেছে।

 

নিয়মিত আপডেট পেতে “প্রবাস জীবন” ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন