• আজঃ শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

ওমরাহ হজ্ব যাত্রীদের এখন বীমার আওতায় আনা হয়েছেঃ সৌদি হজ্ব মন্ত্রনালয়

হজ্ব ও ওমরাহ মন্ত্রনালয়ের মিডিয়া সেন্টারের সাধারন তত্থাবধায়ক আয়মান আরফাজ বলেছেন , ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ওমরাহ হজ্ব যাত্রীদের সফরের সময় বীমা পরিকল্পনা বাস্তবায়নের কাজ শুরু করেছে ।

বীমা কাভারেজ হজ্ব যাত্রীদের  ভিসার সাথে সংযুক্ত হবে এবং এ বীমা ওমরাহ হজ্ব যাত্রীরা সৌদি আগমনের পরে কার্যকর হবে ।

১লা জানুয়ারী পর্যন্ত উমরাহ হজ্ব যাত্রীদের জন্য দ্যা কোম্পানী ফর কো অপারেটিভ ইনস্যুরেন্স (তাউনিয়া) দ্বারা মোট ৮,৪৫২ টি নীতিমালা জারি করা হয়েছিল , তিনি বলেছিলেন।

১১ ডিসেম্বর , ২০১৯ তাউনিয়া হজ্ব ও ওমরাহ মন্ত্রনালয়ের সাথে ওমরাহ ও হজ্ব যাত্রীদের চার বছরের জন্য বীমা পরিসেবা দেয়ার জন্য একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছে ।

ওমরাহ হজ্ব যাত্রী তার বীমা সফরে সরকারী বা বেসরকারী হাসপাতালে যেতে এই সুবিধা গ্রহন করতে পারেন । এক্ষেত্রে তাকে কেবল তার পাসপোর্ট নাম্বার উপস্থাপন করতে হবে ।

বীমার অন্যতম সুবিধার মধ্যে একটি হলো ওমরাহ হজ্ব যাত্রীর বিমান বিলম্ব হলে বা বাতিল হলে , মৃত্যুর ক্ষেত্রে এবং মরদেহ পরিবহনে বা দুর্ঘটনা ও বিপর্যয়ের ক্ষেত্রে ক্ষতিপূরন দেয়া হতে পারে ।

এদিকে সাপ্তাহিক ওমরাহ সরকারী পরিসংখ্যানে বলা হয়েছে যে , ওমরাহ মওসুম শুরু হওয়ার পর থেকে মুহাররম ১ , ১৪৪১ হিজরিতে ওমরাহ ভিসা জুমাদিউল আউয়াল ৭ , ১৪৪৪ হিজরি পর্যন্ত ২,২৭০১,১০০ ওমরাহ ভিসা বের হয়েছে । (আল আরফাজ)

সাপ্তাহিক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে যে ওমরাহ ও জিয়ারাহ পালন শেষে ১,৭৯,৮৫০ ওমরাহ পালন শেষে দেশে ফিরেছে ।

ওমরাহ হজ্ব যাত্রীরা বিভিন্ন প্রবেশ পয়েন্টের মাধ্যমে সউদিতে প্রবেশ করেছিলেন ২,১২০,৬৭৭ এর ও বেশি ওমরাহ হজ্ব যাত্রী বিমান বন্দর হয়ে , ১১৬৫৩৭ স্থল পথ হয়ে এবং ৩৯২৮ জন সমুদ্রবন্দর দিয়ে ।

 

নিয়মিত আপডেট পেতে “প্রবাস জীবন” ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন