• আজঃ সোমবার, ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

সিঙ্গাপুর প্রবাসী চলে গেলেন না ফেরার দেশে

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে চলে গেলেন সিঙ্গাপুর প্রবাসী সাদেকুর রহমান৷ তার মৃত্যুতে পরিবার ও আত্নীয় স্বজন পাড়াপ্রতিবেশিদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানা যায় সাদেকুর রহমান দীর্ঘ ২৫ বছর সিঙ্গাপুর প্রবাসী ছিলেন। হঠাৎ তিনি অসুস্থতা বোধ করলে সিঙ্গাপুর এনজি তেং ফং (NG TENG FONG ) হাসপাতালে ভর্তি হোন। পরীক্ষা নিরীক্ষা করে জানা যার তার লিভারে ইনফেকশন হয়েছে৷ ডাক্তাররা অবস্থা বেগতিক দেখে তাকে আইসিইউতে রেখে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখেন।

চিকিৎসায় তার উন্নতি না দেখে কোম্পানি স্পনসর করে তার স্ত্রী ও বড় ভাই বাবুকে সিঙ্গাপুরে ডেকে আনেন। স্ত্রী ও বড় ভাই প্রায় ১৫ দিন তার দেখাশোনা করেন৷ একসময় সাদেকুর বুঝতে পারেন তার সময় আর বেশী নেই৷ তিনি ডাক্তারদের ডেকে বলেন, আমি মনে হয় বাঁচব না৷ আমাকে দেশে পাঠিয়ে দিন৷ যে কদিন বাঁচি সন্তান ও পরিবারের সঙ্গে কাটাতে চাই।

প্রবাসে থাকার কারনে পরিবার থেকে দীর্ঘদিন দূরে ছিলেন তাই হয়ত তিনি শেষ সময়ে পরিবারের পাশে থাকার ইচ্ছে পোষণ করেছিলেন। ডাক্তার সাদেকুরের স্ত্রী ও বড় ভাইয়ের সাথে তাকে দেশে পাঠানোর ব্যবস্থা করেন।

তবে সিঙ্গাপুরের হাসপাতাল থেকে তাকে চিকিৎসার জন্য ল্যাবএইডে রেফার করা হয়। এমনকি এনজি তেং ফং হাসপাতালের একজন ডাক্তার তার সফরসঙ্গী হোন। তিনি বাংলাদেশের ডাক্তারদের কাছে তার চিকিৎসার সর্বশেষ অবস্থা হস্তান্তর করে সিঙ্গাপুর ফিরে আসেন। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সাদেকুর গত (২/৩/২০) রাত সাড়ে ৯ টায় শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন৷

সাদেকুর মতলব (উত্তর) থানার উত্তর নাউরী মিজি বাড়ির বাসিন্দা৷ তার পিতার নাম মরহুম ফজলুল হক৷ ৫ ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট ছিলেন৷ বিবাহিত জীবনে ছিলেন তিন কন্যা সন্তানের জনক।

তার মৃত্যু সংবাদে সিঙ্গাপুর প্রবাসী সাদেকুরের বন্ধু আহসান হাবীব বলেন,মৃত্যু একটি নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনা। আমরা কত সহজেই না বলি অমুকে মারা গেছে। অমুকে আর নেই। অথচ এই সংবাদটাই পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়াবহ ও কষ্টকর সংবাদ।

একজন ব্যক্তির মৃত্যুতে তাদের পরিবারের উপর দিয়ে কি ভয়াবহ ঝড় বয়ে যায় তা মৃত্যু ব্যক্তির পরিবার ছাড়া অন্য কেহ টের পায় না। টের পাওয়ার কথাও না। আশেপাশের সবাই যখন তাদের স্বাভাবিক জীবন যাপন নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটায়।ঠিক তখন মৃত ব্যক্তির পরিবারের উপর দিয়ে ঝড় এসে সাজানোগুছানো সংসারকে এলোমেলো করে দেয়। আমি সাদেকুরের আত্নার মাগফিরাত কামনা৷

বিশ্বস্তসূত্রে জানা যায় গ্রামের বাড়িতে সাদেকুরের পিতার কবরের পাশে তাকে সমাধি করা হবে। আল্লাহ পাক রেমিট্যান্স যোদ্ধা সাদেকুর রহমান ভাইকে জান্নাতবাসী করুক।

( বি:দ্র:) সাদেকুর ভাইয়ের জানাজা যোহর নামাজের পর উত্তর নাউরী কবরস্থানে)