• আজঃ রবিবার, ১২ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

বাংলাদেশের হাইকমিশনারের সাথে মালয়েশিয়ার কেদাহ রাজ্যের সুলতানের সৌজন্য সাক্ষাত

মালয়েশিয়ার কেদাহ রাজ্যের মাননীয় সুলতান সালাউদ্দিন ইবনে বদলী শাহ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অভূতপূর্ব উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। সুলতানের আমন্ত্রণে তার রাজকীয় প্রাসাদে মালয়েশিয়ায় নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর হাইকমিশনার জনাব মহ.শহীদুল ইসলাম ২০ জানুয়ারী ২০২০ তারিখে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হলে সুলতান এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

সাক্ষাৎকালে মান্যবর হাইকমিশনার আর্থ-সামাজিক সকল সূচকে বাংলাদেশের অভাবনীয় সাফল্য সম্পর্কে কেদাহ সুলতানকে অবহিত করেন । এসময় হাইকমিশনার বাংলাদেশ এবং মালয়েশিয়ার মধ্যে বিদ্যমান ভ্রাতৃত্বপূর্ণ সম্পর্ক কাজে লাগিয়ে দু’দেশের মধ্যকার ব্যবসা-বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে বিপুল সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করেন। পারস্পরিক মিথষ্ক্রিয়ার মাধ্যমে দু’দেশের সম্পর্ক আরো শক্তিশালী হবে বলে উভয়ে আশা প্রকাশ করেন।

মায়ানমারে চলমান রোহিঙ্গা সংকটে বাংলাদেশে প্রায় ১১ লক্ষ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ার যে মানবিক দৃষ্টান্ত মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রেখেছেন সুলতান তার অকুণ্ঠ প্রশংসা করেন। সুলতান এ সংকট মোকাবিলায় মালয়েশিয়া বাংলাদেশের পাশে আছে উল্লেখ করে বিশ্বসম্প্রদায়কে কার্যকর উদ্যোগ নেয়ার আহবান জানান যাতে করে বাস্তুচ্যুত এই জনগোষ্ঠী নিজভূমে ফিরে যেতে পারে।
সুলতান মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশী কর্মীদের প্রশংসা করে বলেন, বাংলাদেশীরা অত্যন্ত কর্মঠ, বিনয়ী ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এসময় তিনি মালয়েশিয়ার উন্নয়নে বাংলাদেশি কর্মীদের অবদানের কথা কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করেন।
সুলতানের সাথে বৈঠকাকালে মান্যবর হাইকমিশনারের সাথে পেনাং –এ নিযুক্ত বাংলাদেশের অনারারি কনসাল জেনারেল দাতো শেখ ইসমাইল, দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সেলর জনাব মোঃ রাজিবুল আহসান, প্রথম সচিব (রাজনৈতিক) জনাব রুহুল আমিন এবং দ্বিতীয় সচিব (শ্রম) জনাব ফরিদ আহমেদ উপস্থিত ছিলেন ।