• আজঃ শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

নোয়াখালীতে দুই গ্রামের সংঘর্ষে আহত-১৫, – আটক

নোয়াখালী সোনাইমুড়ী উপজেলার নদোনা ইউনিয়নের ৫ ও ৬ নং উত্তর শাকতলা ও দক্ষিণ শাকতলা মধ্যে সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়। আকাশ (১৯) নামে একজন অবস্থা আশঙ্কাজনক । এ সময় বেশ কয়েকটি দোকানপাট ও স্থানীয় বাড়ি ঘর ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। আটক করা হয় ৪ জনকে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায় ,গতকাল শনিবার বিকালে দক্ষিণ শাকতলার দুই যুবক হোন্ডা যোগে উত্তর শাকতলা যায় । এ সময় উত্তর শাকতলার পাঁচ ছয় জন মুরুব্বি তাদের ঐ স্থান ত্যাগ করতে বলে । তারা বলে তাদের কাজ শেষ হলে চলে যাবে । এতে মুরুব্বিরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাদের গালমন্দ করে এবং এক পর্যায়ে গায়ে হাত তুলে ।

পরে ঐ স্থানে আরো কিছু মানুষ এসে যুবকদের চলে যেতে বলে তারা তখন চলে যায়। রবিবার সকাল ১০ টায় দক্ষিণ শাকতলার বাট বাড়ির আকাশ (১৯) উত্তর শাকতলা একটি ঘরের ইলেকট্রিক কাজ করতে যায় । ঐ সময় উত্তর শাকতলার কয়েকজন তার উপর দেশীয় অস্ত্র রামদা দিয়ে তাকে কুপিয়ে আহত করে । পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্বার করে সোনাইমুড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে । পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনা এলাকায় জানা জানি হলে দক্ষিণ শাকতলার লোকজন কেরামত আলীর দোকানের সামনে এসে জড়ো হয় । উত্তর শাকতলার লোকজন দেশীয় অস্ত্র সস্র নিয়ে দক্ষিণ শাকতলার জড়ো হওয়া মানুষের উপর হামলা করে । এক পর্যায়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে ।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সারাদিন দফায় দফায় সংঘর্ষ হয় । এ সময় সাধারণ মানুষের বাড়ি ঘরেও হামলা লুটপাট হয় । পুনরায় আবার বিকেলে দক্ষিণ শাকতলার লোকজন জড়ো হয়ে উত্তর শাকতলায় হামলা করলে দু’পক্ষের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয় ।এ সময়ে আহত হয় অন্তত ১৫ জন আহতদের মধ্যে মিলন (১৫), আকাশ (১৯) সহ ১৫ জন আহত হয়।

সোনাইমুড়ী থানা পুলিশ দক্ষিণ শাকতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠ থেকে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। বাজার এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়।