• আজঃ মঙ্গলবার, ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

বঙ্গবন্ধুর খুনির মৃত্যুদণ্ড কার্যকর যে কোন সময়

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার সঙ্গে জড়িত ক্যাপ্টেন (বরখাস্ত) আবদুল মাজেদের ফাঁসি মঞ্চ প্রস্তুত করা হয়েছে। যেকোন সময় তার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হতে পারে।

শনিবার বিকালে ফাঁসি কার্যকরের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। ফাঁসির মঞ্চে ইট-বালির বস্তা ঝুলিয়ে মহড়া সম্পন্ন করেছেন জল্লাদরা। কারা কর্তৃপক্ষের একটি দায়িত্বশীল সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

সূত্র জানায়, আব্দুল মাজেদের ফাঁসি কার্যকরের জন্য ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের ফাঁসির মঞ্চ প্রস্তুত। ওই ফাঁসির মঞ্চে জল্লাদদের মহড়াও সম্পন্ন হয়েছে। মহড়ার সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন শাজাহানসহ আরও কয়েকজন জল্লাদ।
সুত্র জানায়, আজ রাতেই ফাঁসি সম্পন্ন হতে পারে। সব প্রস্তুতি রয়েছে, ফাঁসি কার্যকর সময়ের ব্যাপার মাত্র।

এদিকে রাত সাড়ে ৮টার দিকে মাজেদের স্ত্রী সালেহা বেগমকে কারা-কর্তৃপক্ষ রাত ১১টার দিকে কেরানীগঞ্জ কারাগারে যেতে বলেছে বলে জানা গেছে। তিনি বলেন, আমি, আমার বোন আর ভাইয়ের ছেলেকে নিয়ে যাব। ছেলে-মেয়েরা যাবে না।

চার মেয়ে ও এক ছেলেকে নিয়ে ঢাকা সেনানিবাসের এক নম্বর রোডের একটি বাসায় থাকেন মাজেদের স্ত্রী সালেহা। শুক্রবার বিকালেও তিনি তার ভাই-বোনসহ কয়েকজন আত্মীয়কে নিয়ে কারাগারে গিয়ে মাজেদের সঙ্গে দেখা করেন আসেন। তখনও ছেলে-মেয়েরা তার সঙ্গে ছিলেন না।

২৩ বছর ধরে পলাতক আবদুল মাজেদকে গত সোমবার মধ্যরাতে মিরপুর থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিট। পরদিন মঙ্গলবার দুপুরে মাজেদকে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে হাজির করে সিটিটিসি। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বিচারক।

পরদিন বুধবার মৃত্যুর পরোয়ানা পড়ে শোনানোর পর সব দোষ স্বীকার করে প্রেসিডেন্টের কাছে প্রাণভিক্ষা চান আব্দুল মাজেদ। পরে প্রাণভিক্ষার আবেদনটি নাকচ করে দেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।