• আজঃ মঙ্গলবার, ১৪ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

সোনাইমুড়ীতে ফসলি জমির মাটি ইট বাটার খাবার

নোয়াখালীর সোনাইমুড়ীতে ফসলি জমির মাটি এখন ইটবাটা গুলোর উন্নতম খাবার। এই মাটি গুলো যাচ্ছে বিভিন্ন ইট বাটায়। জমির উপরের অংশ অর্থাৎ টপসয়েল ইট বাটায় যাওয়ায় জমির উর্বরতা হারাচ্ছে।এতে করে খাদ্য ঘার্তির আশংকা করছেন কৃষি বিভাগ।

উপজেলার ১০ টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভায় এক শ্রেণীর লোকজনদের প্রলোভনে পড়ে জমির মালিকরা সামান্য টাকার বিনিময়ে তাদের আবাদি জমির উপরের অংশের মাটি বিক্রি করে দিচ্ছে। শীত মৌশমে শুরু হওয়ার থেকে এই মাটি কাটার উৎসব এখনো চলচে। বিষেশ করে সাধারন জনগন অনেক ভোগান্তি পোয়াতে হচ্ছে।  একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তা চলাচল করা অনুপযোগী হয়ে পড়ে। এতে করে স্কুল কলেজের ছাএ ছাএীদের যাতায়াত ব্যাঘাত ঘটে।

সোনাইমুড়ী উপজেলার কৃষি সম্প্রসারণ জনৈক এক কর্মকর্তা জানান  আবাদি জমিনের উপরের অংশের মাটি কাটার ফলে, মাটির প্রধান খাদ্য নাইট্রজেন, পটাশ, সালফার, জিংক, পসফরাস, ক্যালসিয়াম ও আয়রন সহ অগ্রানিক উৎপাদনের অপরনীয় ক্ষতি হচ্ছে। এর ফলে জমি যে উর্বরতা তা পূরন হতে কমপক্ষে ৫ বছর লাগবে। কৃষকের দরিদ্রতা ও অঙ্গতাকে পুজি করে মাটি সংগ্রহকারি ও দালালরা অর্থের লোভ দেখিয়ে আবাদি জমির মাটি কেটে নিচ্ছে। প্রতিদিন এইসব এলাকা থেকে শতশত অনুমোদন হীন ট্রাকটার দিয়ে মাটি ইট বাটায় যায়।

সোনাইমুড়ী উপজেলার নির্বাহী অফিসার টিনা পাল এই প্রসঙ্গে জানান, জমির মালিকরা লোভে পড়ে মাটি বিক্রি করছে।এতে জমির উর্বরতা হারাচ্ছে। এই বিষয়ে ব্যাবস্তা নেওয়া হবে।