• আজঃ বুধবার, ১৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৩০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

কাতার হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট করোনা ভাইরাস চেক করার স্ক্যানার প্রস্তুত

হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট কাতারের এটা একটি ফটো মাত্র-যাত্রীদের মধ্যে করোনা ভাইরাসে কেউ আক্রান্ত কিনা সেটা চেক করার জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে স্ক্যানার(এই ফটোর পিছনে রয়েছে অনেক কাহিনি)রাতের ডিউটি ছিলো,ভোর ৫ টা ৩০ এ আসে দক্ষিণ কোরিয়া থেকে একটি ফ্লাইট,ডিপাচার গেট ডি তে,রাত ৩ টা থেকে হঠাৎ করে হামাদ ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্ট ডিউটি ম্যানেজার,এয়ারপোর্ট সিকিউরিটি, এয়ারপোর্ট পুলিশ এর আনাগোনা।

প্রথমে বুঝতে পারি নাই কি হচ্ছে,পরে জিজ্ঞাসা করে বুঝতে পারলাম কোরিয়ার ফ্লাইট আসবে,তাই ৪ স্তরের নিরাপত্তা,বন্ধ করা হয়েছে তিনটি ডিপাচার ফ্লাইটের গেট-একগেটে ফ্লাইট ল্যান্ড করবে,অন্য গেটে পেসেঞ্জার যাবে,তৃতীয় গেটে এয়ার ডাঃ প্রত্যেক পেসেঞ্জার কে চেক করবে,করোনা ভাইরাস আছে কিনা–সবাইর কাছে কৌতুহল কি হচ্ছে কি হবে।

ফ্লাইট ল্যান্ড করলো,উপস্থিত হলো এয়ারপোর্টের ডিউটি ম্যানেজার, এইচ আই এ সিকিউরিটি,কাতার এয়ারওয়েজের সিকিউরিটি,কাতার এভিয়েশনএর হুইল চেয়ার টিম,গেট সিকিউরিটি-হাউজকিপিং স্টাফ,কাতার এয়ারওয়েজের বোর্ডিং স্টাফ-প্রস্তুত আছে এম্বুলেন্স।

পেসেঞ্জার বের হলো,চোখে মুখে হাতাশা,সবাই মাস্ক পরা-বিশাল সিকিউরিটি বহর দেখে প্যাসেঞ্জার রা সিকিউরিটি এর দিকে তাকিয়ে আছে , শুরু হল চেকিং,তাদের চোখ টলমল করতেছে,ডাঃ থেকে হ্যা সূচক ইংগিত পাবে সেই দিকে পেসেঞ্জারদের চোখ,ইয়া নাফসি ইয়া নাফসি অবস্থা(চাচা আপনা জান বাচা) চেকিং শেষে পেসেঞ্জার দের জন্য রাখা হলো এয়ারপোর্ট থেকে খাবার,খাবার এর দিকে কারো লক্ষ নেই- সবাই কখন বের হবে সেই চিন্তায় আছে।আলহামদুলিল্লাহ সবাই করোনা ভাইরাস মুক্ত ছিলো-ইতালী,সিংগাপুর,দক্ষিণকোরিয়া-ইরান এর থেকে এরাইভ্যাল ফ্লাইট গুলো থাকবে চেকিং এর আওতায়-কাতারে এখন পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে কেউ আক্রান্ত হয়নি ।

দোহা,কাতার।