• আজঃ বৃহস্পতিবার, ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৯শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

কাতার প্রবাসী আব্দুল আজিজ খান পেলেন সিআইপি সম্মাননা

গত ১৯ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে  বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে প্রবাসী কল্যাণমন্ত্রী ইমরান আহমেদের কাছ থেকে সফল বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি (সিআইপি) হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন কাতারের বিশিষ্ট ও সফল ব্যাবসায়ী আবদুল আজিজ খান।

‘বাংলাদেশে বৈধ চ্যানেলে সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ৪র্থ বারের মতো এনআরবি-সিআইপি (বাণিজ্যিক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি) কাতার প্রবাসী আবদুল আজিজ খান। কাতারে একমাত্র আজিজ খান ৪ বার এই বিরল সম্মানের অধিকারী হলেন।

বর্তমানে এক কোটির বেশি বাংলাদেশি প্রবাসী বাংলাদেশির পাঠানো রেমিট্যান্স আমাদের অর্থনীতির চাকা সচল রেখেছে। জিডিপিতে যার অবদান প্রায় ১২ শতাংশের মতো। এ ক্ষেত্রে বৈধ চ্যানেলে সর্বাধিক বৈদেশিক মুদ্রা পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখা (এনআরবি) সিআইপিরা হলেন দেশের সম্পদ। সম্প্রতি সরকার দেশের অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ ২০১৭ সালের জন্য সারাবিশ্বের যে ৪২ জন প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে সিআইপি নির্বাচিত করেছে তাদেরই একজন পাবনা ঈশ্বরদী উপজেলার কাতার প্রবাসী আবদুল আজিজ খান।

গত ১৯ ডিসেম্বর আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস উপলক্ষে ঢাকায় প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত আনুষ্ঠানে সিআইপি আবদুল আজিজ খানের হাতে এই সম্মাননা তুলে দেন।

সম্মাননা প্রাপ্তির পর আজিজ খান বলেন, এই সম্মান আমাদের আরও উৎসাহ ও দায়িত্ববোধ বাড়াবে নিঃসন্দেহে। অন্য প্রবাসীরাও উৎসাহিত হবে বৈধ চ্যানেলে রেমিট্যান্স পাঠাতে। প্রবাসী সিআইপিরা সরকারের সহযোগী হয়ে জনশক্তি রপ্তানি আর দেশে বিনিয়োগ বাড়াতে অবদান রাখতে পারে, আর এ জন্য সরকারকে উদ্যোগী হয়ে প্রবাসী সিআইপিদের সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে হবে। না হলে সিআইপি খেতাব শুধুমাত্র সামাজিক ও বাণিজ্যিক মর্যাদার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে।

তিনি প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা করে বলেন, আমরা যারা বৈধপথে সরকারকে ট্যাক্স দিয়ে দেশে অর্থ পাঠিয়ে রেমিট্যান্সের চাকা চলমান রেখেছি তাদেরকে যোগ্য সম্মান দেয়ার জন্য, আশা করছি এ সম্মান আমার চলার পথ আরও মসৃণ করবে। দেশের অর্থনীতিতে যাতে আমরা আরও বেশী বেশী অবদান রাখতে পারি, সেই জন্য সবার কাছে দোয়া চাই।

পাবনা জেলার ঈশ্বরদী উপজেলার শাহাপুর ইউনিয়নের আওতাপাড়া গ্রামের আবুল হোসেন খানের ছোট সন্তান ব্যাবসায়ী আব্দুল আজিজ খান। বর্তমানে ঈশ্বরদী পোস্ট অফিস মোড়ে থানার পিছনে স্থায়ী বসবাস করছেন। আজিজ খান নিজ এলাকার গরীব দু:খিদের সাধ্যমত সাহায্য সহযোগীতা করে আসছেন বলে এলাকায় তিনি বেশ সুপরিচিত বলে জানা গিয়েছে।

জাকারীয়া খালিদ
দোহা কাতার