• আজঃ বৃহস্পতিবার, ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

কাতারে রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের দুঃখের কোন শেষ নেই

রেমিট্যান্স যোদ্ধা প্রবাসীদের দুঃখ দেখার কি কেউ নেই?
জীবন-জীবিকার তাগিদে দেশান্তর প্রায় এক কোটি প্রবাসী বাংলাদেশি। একটি উন্নত জীবন। পরিবারের এক চিলতে সুখ আর মুখ ভরা হাসি ফোটাতে নিজের সুখকে জলাঞ্জলি দিয়ে সুখ কিনতে বিদেশে পাড়ি জমান প্রবাসীরা।

কেউ সুখী হয় কেউ আবার দুঃখে ভরা জীবন পাড় করেন। সবাই তো সুখ চায় আর সবাই যে সুখ পাবে এমন নিশ্চিত কথা কারও জানা নেই।তবু জীবনের সাথে অবিরত যুদ্ধ চালায় ভাগ্য উন্নয়নের জন্য রেমিটেন্স যোদ্ধারা। লক্ষ্য থাকে একটাই সবাই মিলে সুখে থাকবে। দিন রাত পরিশ্রম করে মাস শেষে যা বেতন পান সবই দেশে পাঠিয়ে দেন।

নিজের কথা নিজের ভবিষ্যতের কথা একবারও ভাবেনা। বছরের পর বছর হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রম করে অর্থ উপার্জন করেন প্রবাসীরা। দেশের প্রতি রয়েছে অসীম মমতা আর বুক ভরা ভালোবাসা।সে জন্যই দেশে টাকা পাঠিয়ে দেশের অর্থনীতির চাকা গতিশীল রাখে। একটাই দুঃখ জীবন যৌবন বিলিয়ে দেন প্রবাসে। অবশেষ দেখা যায় শূন্য হাত। এতোদিন যে টাকা পাঠিয়েছে তার জন্য অবশিষ্ট কিছুই রাখা হয়নি।

এমন অসংখ্য প্রবাসী আজ দুঃখ দূর্দশার জীবন অতিবাহিত করছে। কিছুই যেন করার নেই। ইচ্ছে করলেই এখন আর আগের যৌবনে ফিরে যাওয়া সম্ভব না।পরিবারের চাহিদা মেটাতে গিয়ে হরহামেশা মানসিক বিপর্যয় নিয়ে থাকতে হয়। অতিরিক্ত মানসিক চিন্তার ফলে অকালে প্রাণ ঝড়ে যাওয়ার অসংখ্য ঘটনা আছে. তবুও সবার কথা ভেবে সব কিছু হাসি মুখে মেনে নেয়ার আরেক নাম প্রবাসী।

 

নিয়মিত আপডেট পেতে “প্রবাস জীবন” ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে সাথে থাকুন