• আজঃ শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

ধেয়ে আসছে বিশালাকার গ্রহাণু, পৃথিবীর উপর কি প্রভাব পড়বে?

নাসা এই বিশালাকার গ্রহাণুর নাম দিয়েছে আসটেরোইড ৫২৭৬৮।
একের পর এক বিপদ যেন ঘিরে ধরেছে পৃথিবীকে। একে করোনাভাইরাসের আক্রমণে জেরবার গোটা বিশ্ব। একের পর এক দেশে হু হু করে ছড়িয়ে পড়ছে মারণ ভাইরাস। এরই মধ্যে এবার নতুন এক বিপদ দেখা দিয়েছে। পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে বিশালাকার এক গ্রহাণু। মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা জানিয়েছে, এই গ্রহাণু পৃথিবীর কক্ষপথের খুব সামনে চলে আসবে।

নাসা এই বিশালাকার গ্রহাণুর নাম দিয়েছে আসটেরোইড ৫২৭৬৮। নাসার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বিশাকার এই গ্রহাণুর পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষ হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। পৃথিবীর কক্ষপথের ৩.৯ লক্ষ মাইলের ভিতর এই গ্রহাণুর আসার সম্ভাবনা নেই। তবুও সেই গ্রহাণুর আকার এতটাই বড় যে শঙ্কা থেকই যায়। জানিয়েছেন নাসার বিজ্ঞানীরা। আনুমানিক ১.১ থেকে ২.৫ মাইল ব্যাস বিশিষ্ট এই গ্রহাণু ধেয়ে আসবে ঘণ্টায় কুড়ি হাজার মাইল বেগে। পৃথিবীর সঙ্গে সংঘর্ষের সম্ভাবনা না থাকলেও এই গ্রহাণুর প্রভাবে পৃথিবীর চৌম্বকক্ষেত্রে পরিবর্তন আসতে পারে বলে মনে করছেন মহাকাশবিজ্ঞানীরা।

আরও একটি ঝুঁকির কথা বলেছেন বিজ্ঞানীরা। পৃথিবীর কয়েকটি জায়গায় সাময়িক সময়ের জন্য সূর্যের আলো প্রবেশে বাধা আসতে পারে। যদিও এই সম্ভাবনার কথা এখনও উল্লেখ করেনি নাসা। জানানো হয়েছে, গ্রহাণুটি প্রায় ০.০৪৪৫৩ অ্যাস্ট্রোনোমিক্যাল ইউনিট দূরত্ব রেখে পৃথিবীর কক্ষপথ টপকে যাবে। ইউরোপিয়ান মহাকাশ গবেষণা সংস্থাও এই গ্রহাণুটিকে পর্যবেক্ষণে রাখছে। মহাকাশবিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, শেষ মুহূ্র্তে এটি গতিপথ পরিবর্তন করলে মহাবিপদের আশঙ্কা রয়েছে।