• আজঃ শনিবার, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

সেপ্টেম্বরেই মানবদেহে টিকা প্রয়োগের অনুমতি চাইবে গ্লোব বায়োটেক

বাংলাদেশি গবেষণা প্রতিষ্ঠান গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড। সম্প্রতি প্রাণিদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শেষে প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞানীরা বলছেন, নিরাপত্তা ও কার্যকারিতার মানদণ্ডে শতভাগ কাজ করছে টিকাটি। এখন আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান সাময়িকীতে গবেষণা ফলাফল প্রকাশের প্রক্রিয়া চলছে। আর চলতি মাসেই মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের অনুমতি চাইবে গ্লোব বায়োটেক।কোভিড-১৯ সংক্রমণের তীব্রতা বাংলাদেশসহ বিশ্বে কিছুটা কমে এলেও এখনও প্রতিদিন প্রাণ যাচ্ছে অনেক মানুষের। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, এই মহামারি শেষ হতে অন্তত দু’বছর লাগতে পারে।

গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড আরও জানান, করোনা মোকাবিলায় ১১৯ টিকা উন্নয়নের প্রকল্প চলমান। এরমধ্যে ২৬ মানবদেহে পরীক্ষামূলক পর্যায়ে রয়েছে। গেল জুলাইয়ে আটটি খরগোশের দেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগে সাফল্য পাওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল বাংলাদেশের গ্লোব বায়োটেক। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার নীতিমালা মেনে বয়স, লিঙ্গ ও ওজনের ভিত্তিতে সম্প্রতি এক হাজারের বেশি ইঁদুরের দেহে পরীক্ষামূলক টিকা প্রয়োগ শেষ করেছে গ্লোব। প্রাপ্ত ফলাফল তুলে ধরে প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞানীরা জানান, নিরাপত্তা ও কার্যকারিতার মানদণ্ডে দারুণভাবে উৎরে গেছে টিকাটি। গ্লোব বায়োটেক লিমিটেড এর সিইও ড. কাকন নাগ বলেন, ‘ট্রায়ালটা এ্যানিম্যাল ট্রায়ালে আমরা দেখি কোন প্রকার ক্ষতিকর দিক আছে কিনা। এ্যানিম্যাল ট্রয়ালে উতরে গেছে ভালোভাবে।’ আর প্রতিষ্ঠানটির সিওও ড. নাজনীন সুলতানা বলেন, ‘সেফটিতে শতভাগ পারফেক্ট। আমি খুবই আশাবাদী। প্রাণিদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের ফলাফল এখন আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান সাময়িকীতে প্রকাশের প্রক্রিয়া চলছে। প্রতিষ্ঠানটির বিজ্ঞানীরা জানান, মানবদেহে পরীক্ষামূলক প্রয়োগের জন্য চলতি মাসেই আবেদন করা হবে। সবকিছু ঠিক থাকলে জানুয়ারির মধ্যেই প্রস্তুত হবে টিকা। গ্লোবের টিকা বাংলাদেশ ছাড়া অন্য দেশেও কার্যকর হবে।