• আজঃ মঙ্গলবার, ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

কয়েকটি হাসাপাতালে করোনার চিকিৎসা বন্ধের কথা ভাবছে সরকার

রাজধানীর দুটো হাসপাতালে করোনা ইউনিটের ভিন্ন ভিন্ন চিত্র। কোথাও গুরুতর রোগীর সংখ্যা বেশী আবার কোথাও আইসোলেশনেও জায়গা হচ্ছে না রোগীদের। এরই মধ্যে রোগীর অভাবে কয়েকটি কোভিড হাসাপাতাল বন্ধ করার কথা ভাবছে সরকার। তবে সময় নিয়ে পর্যায়ক্রমে তা বন্ধ করার পরামর্শ চিকিৎসকদের। দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের অনলাইন ভার্সনে এমনই খবর প্রকাশ পেয়েছে।

দেশে করোনা সংক্রমণের গেল দুই সপ্তাহের চিত্র বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে , আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা কিছুটা কমতির দিকে । আবার সরকারি বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীর সংখ্যাও কম। এমনকি ৬২ শতাংশ শয্যা খালি রয়েছে বলে জানা যায়। এই বাস্তবতায় দেশের কিছু কিছু করোনা হাসাপাতাল বন্ধ করার কথা ভাবা হচ্ছে বলে জানায় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

তবে সরেজমিনে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, এ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ২০০ জনের বেশী গুরুতর আক্রান্ত রোগী ভর্তি আছে। কোষাধ্যক্ষ জানান, আইসোলেশন বিভাগ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিলেও এখনই বন্ধ হচ্ছে না কোভিড ইউনিট। শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিত্র উল্টো। এখানে ২০০ শয্যার কোভিড ইউনিটে রোগী ভর্তি আছে মাত্র ৯৪ জন। তবে আইসোলেশন বিভাগ রোগীতে পরিপূর্ণ। কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, এই মুহুর্তে করোনা ইউনিট বন্ধ করা অনুচিত। তবে পর্যায় ক্রমে দীর্ঘ সময় নিয়ে করোনা হাসপাতাল বন্ধ করা যেতে পারে বলে মত চিকিৎসকদের।