• আজঃ রবিবার, ৫ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ ইং

করোনায় মৃত্যুতে চীনকে পেছনে ফেলল বাংলাদেশ

বিশ্বজুড়ে বিস্তার লাভ করা প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল চীনের উহান। চীনের দুই মাস পর বাংলাদেশে করোনা শনাক্ত হলেও মৃত্যুর সংখ্যায় ইতোমধ্যে চীনকে ছাড়িয়ে গেছে বাংলাদেশ। আর সংক্রমণের দিক থেকে অনেক আগেই বাংলাদেশের পেছনে পড়েছে চীন। গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২৬ জনের। এ নিয়ে ভাইরাসটিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে চার হাজার ৭৫৯ জনে। এর ফলে করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যার দিকে দিয়ে চীনকে ছাড়িয়ে গেল বাংলাদেশ।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সর্বশেষ পরিসংখ্যান বলছে, চীনে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে চার হাজার ৭৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগে গত ১৩ জুন করোনা সংক্রমণের সংখ্যায় চীনকে পেরিয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশ। ওই দিন চীনে করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যা ছিল ৮৩ হাজার ৭৫ জন। আর বাংলাদেশে করোনা সংক্রমিত ব্যক্তি ছিলেন ৮৪ হাজার ৩৭৯ জন। চীনে প্রাদুর্ভাবের তিন মাস পর বাংলাদেশে নতুন করোনাভাইরাসের প্রথম রোগী ধরা পড়ে ৮ মার্চ। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর খবর আসে। গত ৭ সেপ্টেম্বর সেই সংখ্যা সাড়ে চার হাজার ছাড়িয়ে যায়। এর মধ্যে ৩০ জুন একদিনেই ৬৪ জনের মৃত্যুর খবর জানানো হয়, যা একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুর পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে নয় লাখ ২৮ হাজার ৩৪০ জনের এবং আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুই কোটি ৯১ লাখ ৮৯ হাজার ৯০৩ জনে। এর মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন দুই কোটি ১০ লাখ ৩১ হাজার ৭৭৩ জন। বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে, এক লাখ ৯৮ হাজার ৫২০ জন। করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ৭৯ হাজার ৭৫৪ জন। এবং এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৪৮ লাখ ৪৬ হাজার ৪২৭ জন। করোনা আক্রান্তের সংখ্যায় তৃতীয় এবং মৃতের সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে আছে ব্রাজিল। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন এক লাখ ৩১ হাজার ৬৬৩ জন। এবং আক্রান্ত হয়েছেন ৪৩ লাখ ৩০ হাজার ৪৫৫ জন।