• আজঃ মঙ্গলবার, ১২ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৭শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পেতে যাচ্ছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল শফিকুর রহমান

নগর২৪ ডেস্ক:


তিনি ১১তম বিএমএ দীর্ঘ মেয়াদী কোর্সের কর্মকর্তা। বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সুনামের সাথে বেশ কয়েকটি বড় দায়িত্ব পালন করেন। বর্তমানে তিনি সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি সেনা সদর দফতরে ডিরেক্টর অব মিলিটারি অপারেশনস (ডিএমও) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস), জিওসি -৫৫তম পদাতিক ডিভিশন, জিওসি -১৯তম পদাতিক ডিভিশন, জিওসি-২৪তম পদাতিক ডিভিশন হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

তিনি বাংলাদেশ মিলিটারি একাডেমী এবং স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড টেকটিক্সের প্রশিক্ষক ছিলেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড এবং স্টাফ কলেজের একজন সিনিয়র শিক্ষক ছিলেন। তিনি নিউইয়র্কস্থ জাতিসংঘের সদর দফতরে বাংলাদেশের সিনিয়র সামরিক যোগাযোগ কর্মকর্তা পদে কাজ করেছেন।

২০১৫ সালে তিনি চট্টগ্রাম এলাকা কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
২০১০ সালের ১০ এপ্রিল তিনি স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্স এর মহাপরিচালক নিযুক্ত হন।
২০১৮ সালের ২৮ জুলাই তাকে লেফট্যানেন্ট জেনারেল পদে পদোন্নতি দেওয়া হয় এবং সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ (সিজিএস) পদে নিযুক্ত হন।

তিনি ১৯৬২ সালের ৩১শে ডিসেম্বর শরিয়তপুর জেলার সখিপুর থানার ডিএমখালী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন শফিকুর রহমান।১৯৮৪ সালের ২১শে ডিসেম্বর কর্পস অব ইনফেনট্রিতে কমিশন লাভ করেন।

তিনি নেদারল্যান্ডসের ওপিসিডাব্লিউ অ্যাডভান্স কোর্স, পাকিস্তান জুনিয়র স্টাফ কোর্স, ফিলিপাইনের কমান্ড অ্যান্ড জেনারেল স্টাফ কোর্স এবং রোমানিয়ায় ওপিসিডব্লিউ বুনিয়াদি কোর্স সম্পন্ন করেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড এবং স্টাফ কলেজ থেকে স্নাতক হন এবং ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজে আর্মি ওয়ার কোর্স সম্পন্ন করেন।

তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিরক্ষা শিক্ষায় মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। তিনি বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালস থেকে যুদ্ধ অধ্যয়নেও মাস্টার্স সম্পন্ন করেন এবং মাস্টার্সের জন্য চ্যান্সেলর পুরস্কার পান। অত্যন্ত সৎ ও সজ্জন ব্যক্তি হিসেবে সেনাবাহিনীতে তার বেশ সুনাম আছে।