• আজঃ শনিবার, ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

অবরোধ তুলে নিলো নর্থ সাউথ শিক্ষার্থীরা

প্রায় তিন ঘণ্টা পর অবরোধ থেকে মুক্ত হলেন নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য (ভিসি) অধ্যাপক আতিকুল ইসলামসহ অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এর আগে রোববার (১৮ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ছয় দফা দাবিতে উপাচার্যকে অবরুদ্ধ করেন শিক্ষার্থীরা।

সোমবার (১৯ অক্টোবর) সকালে আবারও আন্দোলনে নামবেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন।

জানা গেছে, বাড়তি ফি আদায় বন্ধ, ২০ শতাংশ টিউশন ফি মওকুফের দাবিতে সকাল থেকেই অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে শিক্ষার্থীরা। পরে বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশের সব গেট অবরুদ্ধ করে রাখেন আন্দোলনকারীরা।

তারা জানান, করোনা পরিস্থিতির মধ্যে সবাই আর্থিক সংকটে রয়েছেন। এ কারণে শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত সেমিস্টারে ২০ শতাংশ টিউশন ফি মওকুফ করে নর্থ সাউথ কর্তৃপক্ষ। তবে কোনো নোটিশ ছাড়াই এ সুবিধা বাতিল করেছে কর্তৃপক্ষ। বিষয়টি দৃষ্টি আকর্ষণ করতে একাধিকবার নানা মাধ্যমে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও কোনো সাড়া দেয়নি কর্তৃপক্ষ। তাই বাধ্য হয়ে আন্দোলনে নামতে হয়েছে।

জানতে চাইলে আমিনুর রাহমান রাকিব নামে এক শিক্ষার্থী বলেন, আমরা এখন ল্যাব ব্যবহার করছি না, তবুও ল্যাব ফি নিচ্ছে। টিউশন ফি কমিয়ে আবার সেটি বাতিল করছে। লাইব্রেরি ইউজ না করলেও ফি দিতে হচ্ছে। তাই আমরা আন্দোলনে নামছি। আমাদের দাবি মেনে নিলে আমরা সরে যাবো।

শিক্ষার্থীদের দাবির মধ্যে রয়েছে- ২০ শতাংশ টিউশন ফি ওয়েভার, কোটা এবং ফলাফলের ওপর প্রাপ্ত ওয়েভারের সঙ্গে অতিরিক্ত ২০ শতাংশ যুক্ত, অর্থনৈতিক সমস্যাগ্রস্ত শিক্ষার্থীদের শতভাগ ওয়েভার প্রদান, সেমিস্টার ফি’র সঙ্গে অতিরিক্ত অর্থ আদায় না করা এবং শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন পরিশোধের ব্যবস্থা করা।